shadow

গঠনতন্ত্র [পৃষ্ঠা-০১]

দর্শনা পরিবার
(ঢাকাস্থ দর্শনাবাসীদের সংগঠন)

এর

গঠনতন্ত্র

দর্শনা পরিবার

সংগঠনের স্থায়ী অফিস ঢাকা শহরে অবস্থিত হবে এবং স্থায়ী অফিস না হওয়া পর্যন্ত ঢাকা মহানগরের যে কোন স্থানে অস্থায়ী কার্যালয় থাকবে। বর্তমানে এর অস্থায়ী কার্যালয়ঃ ১২/৬ সলিমুল্লাহ রোড (পানির ট্যাঙ্কি মাঠ এর বিপরীতে), মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭।


ক. সংগঠনের সদস্য ও তাদের পরিবারের সদস্যদের মধ্যে আন্তঃ সম্পর্ক উন্নয়ন ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তোলা।
খ. দর্শনার ঐতিহ্য রক্ষা সহ শিক্ষা, সাহিত্য, ক্রিড়া, সাংস্কৃতিক এবং সামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখা ।
গ. দর্শনার কোন বাসিন্দা কারো দ্বারা ক্ষতিগ্রস্থ হলে তার ন্যায্যতা প্রাপ্তিতে সহযোগিতা করা।
ঘ. দর্শনায় যে কোন প্রাকৃতিক ও মানুষ সৃষ্ট দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থের পাশে দাঁড়ানো।
ঙ. নতুন প্রজন্মের ছেলে-মেয়েদের সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে সহযোগিতা করা।

ক. গণতান্ত্রিক
খ. অসাম্প্রদায়িক ও দল নিরপেক্ষ
গ. মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনার প্রতি শ্রদ্ধাশীল
ঘ. নারী ও পুরুষের সম-মর্যাদায় বিশ্বাস
ঙ. পারস্পরিক শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা

ক. সদস্যদের পরিবারের মধ্যে আড্ডার পরিবেশ গড়ে তোলা।
খ. নতুন প্রজন্মের সুবিধাবঞ্চিত ও মেধাবী ছাত্র/ছাত্রীদের শিক্ষা ও তার পূর্ণ সম্ভাবনা বিকাশে সহযোগিতা করা।
গ. আপদকালীন সময়ে ক্ষতিগ্রস্থদের সহযোগিতা করা।
ঘ. দর্শনার কোন ব্যক্তি সৃজনশীল কোন উদ্যোগ গ্রহণ করলে তার বিকাশে সহযাকরা।
ঙ. সংগঠনের সদস্য এবং দর্শনাবাসীদের জন্য হিতকর ও উন্নয়ন মূলক প্রকল্পে / কার্যক্রমে সহায়তা করা।
চ. দর্শনার শিক্ষা, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতির উন্নয়ন সাধনে কাজ করা।
ছ. সংগঠনের সদস্যগদের মাধ্যমে সাংস্কৃতিক ও ভাবগত ঐক্য এবং মনোভাব গঠনে পত্র পত্রিকা, সাময়িকী এবং অন্যান্য প্রকাশনা, সম্পাদনা প্রকাশ করা।

জন্ম/বিবাহ/শিক্ষা/কর্ম/স্থায়ী বসবাস সূত্রে দর্শনার সাথে সম্পর্কিত ১৮ বছরের অধিক বয়সের ঢাকায় বসবাসকারী যে কোন ব্যক্তি সংগঠনের সদস্য হতে পারবেন।

সংগঠনে তিন প্রকার সদস্য থাকবে ।
ক. সাধারণ সদস্য
খ. আজীবন সদস্য
গ. বিশেষ সদস্য

সংগঠনের ধারা ৮ এর শর্তানুসারে যে কোন ব্যক্তি সাধারণ সদস্য হতে পারবেন। সাধারণ সদস্যকে বার্ষিক ২০০/- (দুই শত) টাকা চাঁদা প্রদান করতে হবে।

দর্শনার যে কোন বাসিন্দা এককালীন ১০,০০০/- (দশ হাজার) টাকা চাঁদা প্রদান করে আজীবন সদস্য হতে পারবেন। ধারা ৮ এর যোগ্যতানুসারে বর্তমানে বিদেশে অবস্থানরত যে কোন ব্যক্তি সংগঠনের সাথে থাকতে চাইলে তিনি আজীবন সদস্যপদ গ্রহণ করে সংগঠনের সদস্য থাকতে পারবেন। আজীবন সদস্যদেরপূর্ণ ভোটাধিকার থাকবে কিন্তু তিনি কার্যনির্বাহী পরিষদের কোন পদের জন্য প্রার্থী হতে পারবেন না।

যে কোন ব্যক্তি(সংগঠনের আদর্শ ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী) সংগঠনের কল্যাণার্থে নুন্যতম ১,০০,০০০/- (এক লক্ষ) টাকা চাঁদা প্রদান করে বিশেষ সদস্য হতে পারবেন। বিশেষ সদস্যের ভোটাধিকার থাকবে কিন্তু তিনি নির্বাহী পরিষদের কোন পদের জন্য প্রার্থী হতে পারবেন না। তিনি সংগঠনের বিভিন্ন সভা ও অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারবেন ।

সাংগঠনিক কাঠামো তিনটি স্তরে বিভক্ত হবে;
ক. সাধারণ পরিষদ
খ. নির্বাহী পরিষদ
গ. উপদেষ্টা পরিষদ

সংগঠনের সকল সাধারণ সদস্য সমন্বয়ে সাধারণ পরিষদ গঠিত হবে। সাধারণ পরিষদ সকল ক্ষমতা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণের অধিকারী। পরিষদ সাধারণ সভায় মিলিত হয়ে সংগঠনের নীতি নির্ধারণী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে। সাধারণ পরিষদের সভা বছরে একবার অনুষ্ঠিত হবে, তবে সাংগঠনিক প্রয়োজনে একাধিক বিশেষ সাধারণ সভা করা যাবে।

সাধারণ পরিষদের সদস্যরা সংগঠনের নিয়মিত কাজ পরিচালনার সুবিধার্থে নির্বাচনের মাধ্যমে একটি নির্বাহী পরিষদ গঠন করবেন। নির্বাহী পরিষদের মোট সদস্য সংখ্যা হবে ৪৫ জন। নির্বাহী পরিষদের যে কোন সদস্য পর পর দুই মেয়াদের বেশি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন না তবে, পর পর দুই মেয়াদের পর এক মেয়াদে সাধারণ সদস্য থাকার পর পুনরায় নির্বাহী পরিষদের যে কোন পদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন। নির্বাহী পরিষদের মেয়াদ হবে ২ বছর। নির্বাহী পরিষদের কাঠামো হবে নিম্নরূপ-

১) সভাপতিঃ ১জন
২) সহ-সভাপতিঃ ৭ জন
৩) সাধারণসম্পাদকঃ ১ জন
৪) সহ-সাধারণসম্পাদকঃ ৬ জন
৫) সাংগঠনিক সম্পাদকঃ ১ জন
৬) সহ-সাংগঠনিক সম্পাদকঃ ১ জন
৭) সম্পাদক, অর্থঃ ১ জন
৮) সহ-সম্পাদক, অর্থঃ ১ জন
৯) সম্পাদক, দপ্তরঃ ১ জন
১০) সহ-সম্পাদক, দপ্তরঃ ১ জন
১১) সম্পাদক, মহিলা বিষয়কঃ ১ জন
১২) সম্পাদক, প্রচারঃ ১ জন
১৩) সম্পাদক, ছাত্রও ছাত্রী কল্যাণঃ ১ জন
১৪) সহ-সম্পাদক, ছাত্রও ছাত্রী কল্যাণঃ ১ জন
১৫) সম্পাদক, স্বাস্থ্যঃ ১ জন
১৬) সম্পাদক, ক্রীড়াঃ ১ জন
১৭) সম্পাদক, শিক্ষাঃ ১ জন
১৮) সম্পাদক, সাহিত্যঃ ১ জন
১৯) সম্পাদক, সাংস্কৃতিঃ ১ জন
২০) সম্পাদক, প্রকাশনাঃ ১ জন
২১) সম্পাদক, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনাঃ ১ জন
২২) সম্পাদক, আন্তর্জাতিকঃ ১ জন
২৩) সম্পাদক, তথ্য গবেষণাঃ ১ জন
২৪) সম্পাদক, বিজ্ঞানওপ্রযুক্তিঃ ১ জন
২৫) নির্বাহী সদস্যঃ ১০ জন

নির্বাহী পরিষদের সভা দ্বি-মাসিক ভিত্তিতে অনুষ্ঠিত হবে, তবে বিশেষ প্রয়োজনে যে কোন সময় নির্বাহী পরিষদের সভা আহ্বান করা যাবে।

সাধারণ সভার অনুমোদন ক্রমে ১৫-২০ সদস্য সমন্বয়ে উপদেষ্টা পরিষদ গঠিত হবে। উপদেষ্টা পরিষদের সম্মানিত সদস্য পদ গ্রহণের জন্য নির্বাহী পরিষদ দর্শনার প্রবীণ ও বিখ্যাত ব্যক্তিদের আমন্ত্রন জানাবে (ক্ষেত্রবিশেষে, সংগঠনের আদর্শ ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী জাতীয় খ্যাতনামা ব্যক্তিকে উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যপদ গ্রহণের জন্য আমন্ত্রন জানানো যেতে পারে)। উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যদের সাধারণ ভোটাধিকার থাকবে তবে নির্বাহী পরিষদের কোন পদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন না। নির্বাহী পরিষদের আহ্বানে উপদেষ্টা পরিষদ নির্বাহী পরিষদের নির্বাচন সম্পন্ন করতে নিজেদের মধ্য হতে একজন প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও দুইজন সহকারী নির্বাচন কমিশনার নিযুক্ত করবেন এবং নির্বাচনের দ্বায়িত্ব গ্রহণ করবেন।

একজন সদস্যের সদস্যপদ অবসান সাময়িক বা স্থায়ীভাবে মূলতবী অথবা বাতিলের ক্ষমতা কার্য নির্বাহী পরিষদের সংখ্যা গরিষ্ঠের মতামতের ভিত্তিতে সভাপতি সংরক্ষণ করবেন এবং সাধারণ সম্পাদক কর্তৃক পত্র মারফত তাকে অবগত করা হবে।

১) ৩০ দিন পূর্বে সভাপতি বরাবরে প্রেরিত লিখিত পত্রে পদত্যাগের অভিপ্রায় ব্যক্ত করে কোন সদস্য যে কোন সময়ে পদত্যাগ করতে পারেন। তবে পদত্যাগের পূর্ব দিন পর্যন্ত তাহার কাছে প্রাপ্য সংগঠনের সমুদয় পাওনা/তথ্য প্রমানাদি পরিশোধ/হস্তান্তর করতে বাধ্য থাকবেন।
২) কোন সদস্যের পদত্যাগ পত্র নির্বাহী পরিষদ কর্তৃক গৃহীত হলে।
৩) নির্বাহী পরিষদ কর্তৃক পূর্বসতর্কতাসত্ত্বেও যদি কোন সদস্য উপর্যপুরি সংগঠনের আইন-কানুন লঙ্ঘন করে থাকেন ও কর্তব্য পালনে গুরুতর ব্যর্থতার পরিচয় দেন তা হলে উক্ত সদস্যকে সাময়িকভাবে বরখাস্থ অথবা বহিস্কার করা যাবে।
৪) কোন বহিস্কৃত সদস্যকে তার আবেদনের ভিত্তিতে সাধারণ সভার পূর্ব অনুমোদনক্রমে বহিস্কারের তারিখ হতে অনুন্য এক বৎসর পর পুনরায় সদস্য ভুক্ত করা যেতে পারে।
৫) যে কোন কারণেই হোক, সদস্যপদ হারানো সত্ত্বেও কোন সদস্য তার কাছে সংগঠনের সকল বকেয়া পাওনা পরিশোধে বাধ্য থাকবেন। কেউ স্বেচ্ছায় সদস্য পদত্যাগ করলে বা অন্য কোন কারণে সদস্য পদের অবসান হলে তিনি বর্ষপঞ্জীর বাকী সময়ের জন্য চাঁদার অংশ মওকুফ বা ফেরৎ পাওয়ার যোগ্য হবেন না।
৬) দেশের প্রচলিত আইনে দন্ডিত হলে।

নিম্নলিখিত যে কোন কারণে নির্বাহী পরিষদের কোন পদাধিকারী ব্যক্তি বা সদস্যপদ শূণ্য হবে
১) সদস্যপদ হতে পদত্যাগ করলে এবং তার পদত্যাগপত্র গৃহীত হলে
২) নির্বাহী পরিষদ হতে ছুটি বা অনুমতি ব্যতিরেকে পরিষদের তিনটি ধারাবাহিক সভায় অনুপস্থিত থাকলে
৩) সংগঠনের স্বার্থের পরিপন্থী কোন কাজ-কর্মে লিপ্ত হলে
৪) মানসিক ভারসাম্য হারালে
৫) সংগঠনের গঠনতন্ত্রের পরিপন্থী কোন কাজ-কর্মে লিপ্ত থাকলে

দর্শনা পরিবার © কপিরাইট ২০২১ । কারিগরি সহায়তা : এড্রেস বাজার ডট কম